5 Best Durga Puja Poems In Bengali (দুর্গা পূজার কবিতা)

দুর্গা পূজার কবিতা, দুর্গা মায়ের আগমনী কবিতা [Durga Puja Bengali Poem, Durga Puja Poems In Bengali] (Durga Puja Poems 2021, Durga Puja Kobita Bangla)

মায়ের আগমনের সঙ্গে চারিদিকে যেন এক খুশির আবহাওয়া ছড়িয়ে পড়ে। এই মনোরম আবহাওয়ায় থাকে ভালোবাসা, স্নেহ এবং সব কষ্ট দূর করার ক্ষমতা। এমন সময়ে সঙ্গে যদি মায়ের আগমনী কবিতা থাকে তাহলে আর কী চাই।

তাই আজ আমরা বেঁছে নিয়েছি 5 Best Durga Puja Poems in Bengali, যার কবিদের মধ্যে আছেন – Subho Dasgupta, Subrata Pal, Mallika Sengupta, Bhabaniprasad Majumder এর মতো সুপরিচিত কবিগণ। যার মধ্যে আমরা ভবানীপ্রসাদ মজুমদারের দুটি কবিতা তুলে নিয়েছি। তাহলে দেখে নেওয়া যাক Durga Puja Bengali Poems গুলো-

#1 Durga Jaben Baper Bari

দুর্গা যাবেন বাপের বাড়ি কবিতা আবৃতি

Durga Jaben Baper Bari is a Bengali poem related to Durga Puja. Bangla Kobita Durga Jaben Baper Bari was written by the Bengali poet Bhabaniprasad Majumder. The poem was recited by many well-known Bengali artists such as Priti Pandit, Riti Sen, Sribarna Saha and others.

Durga Jaben Baper Bari Lyrics

দুর্গা যাবেন বাপের বাড়ি, সঙ্গে যাবে কে ?
লক্ষী-সুরাে, গন্ শা-কেতাে, কোমর বেঁধেছে।
ময়ূর-প্যাচা, হাঁস ও ইদুর, ওরাও সাথে যাবে
পাঁচ-ছ’টা দিন, তাক-ধিনা-ধিন, মজা ক’রেই খাবে |

বললে ওরা, ভাল্লাগে রােজ একই জিনিস খেতে ?
বছরে তাই চাই ক’টা দিন অন্য কিছু পেতে
হলেও ভঙ্গ, ও-দেশ বঙ্গ, দারুণ রঙ্গ-ভরা
চপ-রােল-ফ্রাই, চাউ-মােগলাই, স্বাদ কী পাগল-করা !
চিকেন-মটন-বিরিয়ানি, হাউ ফানি হাউ লাভলি !
কোপ্তা-কাবাব, কোর্মা-পােলাও, ফুচকা-আলুকাবলি !
বোদে-গজা-গুজিয়া আর সরভাজা-সরপুরিয়া
রসগােল্লা-পান্তুয়ারাও আছে হৃদয় জুড়িয়া ||

পায়েস খাবাে আয়েস করেই, মিহিদানা-চমচম
দই-দানাদার-দরবেশও বেশ, খাবাে সবাই কম-কম ।
দুর্গাদেবী বললে : পেটুক, স্বভাব তােদের মন্দ
তাই এবারে আমার সাথে যাওয়া তােদের বন্ধ |

শুনেই জোরে কাঁদতে থাকে ময়ূর-প্যাঁচা-হাঁস
চোখের জলে, নাকের জলে, সব করে হাঁসফাস !
মা বললেন, যাবি-যাবি, থামা কান্নার সুর-রে
চেঁচায় সবাই, থ্যাঙ্ক ইউ মম, হিপ-হিপ-হিপ-হুররে!

৩টি সেরা লক্ষ্মী পূজার কবিতা

#2 Amar Durga

আমার দুর্গা কবিতা আবৃতি

Amar Durga also known as Kanya Shlok is a Bengali poem written by Mallika Sengupta. The poem was recited by many well-known Bengali artists such as Bratati Bandopadhyay, Soma Kanjilal, Soumyashree Ganguly and others.

Amar Durga Poem Lyrics

মেয়েটির নাম দুর্গা সোরেন বটেক
মায়ের ছিল না অক্ষরজ্ঞান ছটেক
সর্বশিক্ষা অভিযানে পেয়ে বৃত্তি
দুর্গা হয়েছে ইংরেজি স্কুলে ভর্তি
সাঁওতালি ডান, ইংরেজি ভাষা বাঁ হাতে
কমপিটারে শিখেছে ই-মেল পাঠাতে
অঙ্কের স্যার ভুল হলে যোগবিয়োগে
গায়ে হাত দেয় পড়া শেখানোর সুযোগে
দুর্গা জানে না কোনটা যৌন লাঞ্ছনা
স্যারটা নোংরা বটেক, কথাটা মানছ না!
শেষে একদিন স্যারের নোংরা হাতটা
মুচড়ে দিয়েছে দুর্গা মেরেছে ঝাপটা
ওড়ে অর্ধেক আকাশে মাটিতে শ্যাওলা
আকাশে উড়বে হবে কল্পনা চাওলা
যদি না বিমান ভেঙে পড়ে তার দুর্দার
মহাকাশচারী হবেই বটেক দুর্গা।।

বিশ্বায়নে পণ্যায়নে খণ্ডখণ্ড মানচিত্রে বাংলা-বিহার-রাজস্থানে সাধারণী নমস্তুতে
কন্যাব্রতে পত্নীব্রতে মোহমুদ্রা ধ্বংসমুদ্রা প্রযুক্তিতে গৃহকর্মে সাধারণী নমস্তুতে।।

আমার দুর্গা পথেপ্রান্তরে ইস্কুলঘরে থাকে
আমার দুর্গা বিপদে আপদে আমাকে মা বলে ডাকে
আমার দুর্গা আত্মরক্ষা, শরীর পুড়বে, মন না
আমার দুর্গা নারীগর্ভের রক্তমাংস কন্যা
আমার দুর্গা গোলগাল মেয়ে, আমার দুর্গা তন্বী
আমার দুর্গা কখনও ঘরোয়া কখনও আগুন বহ্নি
আমার দুর্গা মেধা পাটকর, তিস্তা শীতলাবাদেরা
আমার দুর্গা মোম হয়ে জ্বালে অমাবস্যার আঁধেরা
আমার দুর্গা মনিপুড় জুড়ে নগ্ন মিছিলে হাঁটে
আমার দুর্গা কাস্তে হাতুড়ি আউশ ধানের মাঠে
আমার দুর্গা ত্রিশূল ধরেছে স্বর্গে এবং মর্ত্যে
আমার দুর্গা বাঁচতে শিখেছে নিজেই নিজের শর্তে।

আন্দোলনে উগ্রপন্থে শিক্ষাব্রতে কর্মযজ্ঞে রান্নাঘরে আঁতুড়ঘরে, মা তুঝে সালাম
অগ্নিপথে যুদ্ধজয়ে লিঙ্গসাম্যে শ্রেণিসাম্যে দাঙ্গাক্ষেত্রে কুরুক্ষেত্রে, মা তুঝে সালাম।।

মা তুঝে সালাম
মা তুঝে সালাম।।

#3 Tomar Durga Amar Durga

তোমার দুর্গা আমার দুর্গা কবিতা আবৃতি

Tomar Durga Amar Durga is a Bengali poem related to Durga Puja written by Subrata Pal. The poem was recited by many well-known Bengali artists such as Bratati Haldar, Projukti Bandyopadhyay, Subrata Mitra and others.

Tomar Durga Amar Durga Lyrics

তোমার দুর্গা মহালয়া ভোরে শরৎ মাখছে গায়
আমার দুর্গা এখনো দেখছি ফুটপাতে জন্মায়।

তোমার দুর্গা অকালবোধন একশো আটটা ফুল
আমার দুর্গা দূর থেকে দ্যাখে খিচুড়ির ইস্কুল।

তোমার দুর্গা আগমনী গান গিরিরাজ কন্যার
আমার দুর্গা ঘর দোর ভাসা বাঁধ ভাঙা বন্যার।

তোমার দুর্গা প্রতিবার আসে বাবা মা’র বাড়িতেই
আমার দুর্গা মা’র কোলে পিঠে, বাবার খবর নেই।

তোমার দুর্গা টেক্কা দিয়েছে এবার থিমের পুজো
আমার দুর্গা ইট বয়ে বয়ে এক্কেবারেই কুঁজো।

তোমার দুর্গা হুল্লোড়ে মাতে প্যান্ডেলে প্যান্ডেলে
আমার দুর্গা বাঁচতে শিখছে অতীতকে ছুঁড়ে ফেলে।

তোমার দুর্গা আলো ঝলমল চেনে না অন্ধকার
আমার দুর্গা রোজ সেজে গুজে খোঁজে তার সংসার।

তোমার দুর্গা শপিং মলের কফির ধোঁয়ায় ওড়ে
আমার দুর্গা চা বানাচ্ছে, তিন রাস্তার মোড়ে।

তোমার দুর্গা বহুজাতিকের বহুজনহিতায়চ
আমার দুর্গা কালকে যেমন, আজো তথৈবচ।

তোমার দুর্গা ছবির ফ্রেমের শিউলি এবং কাশে
আমার দুর্গা এখনো আশায় কেউ যদি ভালোবাসে।

তোমার দুর্গা ধুনুচি নাচের ঢ্যাম্‌ কুড় কুড় ঢাকে
আমার দুর্গা ঘুরেই মরছে দশচক্রের পাকে।

তোমার দুর্গা অঢেল খাবার অঢেল নষ্ট হয়
আমার দুর্গা দিন আনাআনি কিছু নেই সঞ্চয়।

তোমার দুর্গা কুলকুল নদী, স্নেহের প্রথম পাঠ
আমার দুর্গা নখের আঁচড়ে ভয়েই শুকিয়ে কাঠ।

তোমার দুর্গা অস্ত্র শানায় সিংহবাহিনী রূপ
আমার দুর্গা কাঁদতে কাঁদতে নির্বাক, নিশ্চুপ।

তোমার দুর্গা দশভুজা হয়ে অসুরের মাথা কাটে
আমার দুর্গা অপুষ্টি নিয়ে ধুঁকতে ধুঁকতে হাঁটে।

আমার দুর্গা কবে বলো আর তোমার দুর্গা হবে ?
আমার আকাশ ভরবে তোমার উৎসবে উৎসবে !!

#4 Sob Durgai Thakuk Sukhe

সব দুর্গাই থাকুক সুখে কবিতা আবৃতি

Sob Durgai Thakuk Sukhe is a Bengali poem written by Bhabaniprasad Majumder. The poem was recited by many well-known Bengali artists such as Priti Pandit, Brati Haldar, Arpita Nath Nandi and others.

Sob Durgai Thakuk Sukhe Kobita Lyrics

এক দুর্গা রিক্সা চালায় কুচবিহারের হাটে
এক দুর্গা একশো দিনের কাজে মাটি কাটে |
এক দুর্গা রাস্তা বানায় পিচ ও পাথর ঢালে
এক দুর্গা রোজ চুনো মাছ ধরছে বিলে – খালে।
এক দুর্গা করছে মাঠে দিনমজুরের কাজ
এক দুর্গা খিদেয় কাঁদে, পায়নি খেতে আজ।
সবাই জানি, এদের কারো হয়না কোনও পূজো
এরা তো মা তোমার মতো নয়কো দশভুজো।
সব দুর্গার চোখে-মুখেই ফুটবে হাসি কবে?
মাগো, তোমার পুজো সেদিন সত্যি সফল হবে।

এক দুর্গা পাথর ভাঙে রোজই আসানসোলে
এক দুর্গা পেটের জ্বালায় খনিতে কয়লা তোলে।
এক দুর্গা বাড়ি কষ্টে বাসন মাজে
এক দুর্গা কারখানাতে ব্যস্ত নানান কাজে।
এক দুর্গা চা-বাগানে তোলে চায়ের পাতা
এক দুর্গা পাড়ায় পাড়ায় ঘুরেই সারায় ছাতা।
সবাই জানি, এদের কারো হয়না কোনও পুজো
তাই বলি মা, এদের চোখেও পূজোর খুশি খুঁজো।
সব দুর্গার চোখে-মুখেই ফুটবে হাসি যবে
মাগো, তোমার পূজো সেদিন সত্যি সফল হবে।

এক দুর্গা হাসপাতালের সবার চেনা আয়া
এক দুর্গা নার্সদিদি তাঁর মনে ভীষণ মায়া।
এক দুর্গা সবজি বেঁচে নিজের পায়ে দাঁড়ায়
এক দুর্গা মুরগি কাটে, নিজেই পালক ছাড়ায় |
এক দুর্গা হোটেল চালায়, বানায় মাংস-ভাত
এক দুর্গা বুট-পালিশে জোরসে চালায় হাত |
এমনি হাজার দুর্গা যারা পায় না কোনও পূজো
এদের দুঃখ-কষ্ট তুমিই দরদ দিয়ে বুঝো |
সব দুর্গার চোখে-মুখে ফুটলে হাসি তবে
মাগো, তোমার পূজো সেদিন সত্যি সফল হবে |

#5 Sharadiya

শারদীয়া কবিয়া আবৃতি

Sharadiya is a Durga Puja-related Bengali poem written by Subho Dasgupta. The poem was recited by many well-known Bengali artists such as Medha Bandopadhyay, Sathi Das, Piali Chandra and others.

Sharadiya Kobita Lyrics

গেরুয়া নদীর পাড় ঘেষে সেই ছোট্ট আমার গ্রাম
ছেলেবেলার ছেলেখেলার সেই আনন্দধাম।
আকাশ ছিল সুনীল উদার রোদ্দুরে টান টান,
গেরুয়া নদীর পাড় ঘেষে সেই ছোট্ট আমার গ্রাম
গেরুয়া নদীর পাড় ঘেষে সেই গ্রামের শেষ পাড়া,
নবীন কাকার কুমোর বাড়ি, ঠাকুর হত গড়া।
সাত পাড়াতে বেজায় খ্যাতি, নবীন তালেবর,
নবীন কাকার হাতের ঠাকুর অপূর্ব সুন্দর।
এক এক বছর এক এক রকম ঠাকুর তৈরি হতো,
সেসব ঠাকুর দেখতে মানুষ বেজায় ভিড় জমাতো।
স্কুল পালানো দুপুর ছিলো, ছিলো সঙ্গী সাথী,
চোখ জুড়ানো মূর্তি দেখতে ভীষণ মাতামাতি।
শারদীয়ার দিন গড়াতো শিউলি গন্ধে দুলে,
রোজই যেতাম ঠাকুর গড়া দেখতে সদলবলে।

নবীন কাকার হাতের ঠাকুর অপূর্ব সুন্দর।
এক এক বছর এক এক রকম ঠাকুর তৈরি হতো,
সেসব ঠাকুর দেখতে মানুষ বেজায় ভিড় জমাতো।
স্কুল পালানো দুপুর ছিলো, ছিলো সঙ্গী সাথী,
চোখ জুড়ানো মূর্তি দেখতে ভীষণ মাতামাতি।
শারদীয়ার দিন গড়াতো শিউলি গন্ধে দুলে,
রোজই যেতাম ঠাকুর গড়া দেখতে সদলবলে।
নবীন কাকা গরিব মানুষ, সদাই হাসিমুখে,
নিবিষ্ট মন, ব্যস্ত জীবন, আপন ভোলা সুখে।
হাতের ছোঁয়ায় তৈরি হতো লক্ষ্মী, গণেশ, পেঁচা,
দূর গাঁয়ে তার ছোট্ট বাড়ি, ঠাকুর গড়েই বাঁচা।
সে বছর কি হলো বলি, শোনো দিয়ে মন,
বন্যা হলো ভীষণরকম ভাসলো যে জীবন।
কত মানুষ ঘর হারালো, প্রাণ হারালো কত,
গোটা গ্রামের বুকটি জুড়ে হাজার আঘাত ক্ষত।
ধানের জমি পাটের ক্ষেতে জল থৈ থৈ বান,
সর্বনাশের কান্না ঘেরা হাজার নিঃস্ব প্রাণ।

বর্ষা শেষে বন্যা গেল, জাগলো শারদ আলো,
নীল আকাশে পুজোর ছুটি দিব্যি ডাক পাঠালো।
কাশফুলেরা উঠল দুলে, শিউলি ঝরা দিন,
পুজো আসছে রোদ্দুরে তাই বাজলো খুশির বীণ।
নবীন কাকার টালির ঘরে হচ্ছে ঠাকুর গড়া,
গেরুয়া নদীর পাড় ঘেঁষে গ্রাম জাগলো খুশির সাড়া।
আমরা যত কচিকাঁচা, আবার জড়ো হয়ে,
ঠাকুর দেখতে গেলাম ছুটে মাঠ ঘাট পেরিয়ে।
সেবার মাত্র গুটিকয়েক ঠাকুর টালির ঘরে,
পুজোর আয়োজন তো সেবার নমোনমো করে।
তারই মধ্যে একটি ঠাকুর টালির চালের কোনে,
নবীন কাকা ভাঙেন, গড়েন নিত্য আপন মনে।
অন্য ঠাকুর দেখতে চাইলে বাধা দিতেন না,
ওই ঠাকুরটি দেখতে চাইলে না শুধু না।
কৌতূহলে দিন গড়ালো পুজো এলো কাছে,
মহালয়ার দিন টি এলো পুজোর খুশির সাজে।
আমরা কয়জন রাত থাকতে উঠেছি ঘুম ছেড়ে,
পুবের আকাশ মলিন, আলো ধীরে উঠছে বেড়ে।
অন্ধকারে চুপিসারে গুটিগুটি পায়ে,
আমরা হাজির নবীন কাকার ঘরের কিনারায়।
চুপ্টি করে দরজা ঠেলে ভিতরে গিয়ে,
দেখি কাকা চোখ আঁকছেন সমস্ত মন দিয়ে।
চোখ আঁকা যেই সাঙ্গ হল, নিথর নবীন কাকা,
অঝোর ধারে কেঁদেই চলেন দুহাতে মুখ ঢাকা।
কাঁদছে শিল্পী, নিরব বিশ্ব, কুপির আলো ঘরে,
নবীন কাকার পাষাণ হৃদয় কান্না হয়ে ঝরে।

রাত ফুরোনো ভোরের আকাশ, কৃপণ অল্প আলো,
মুখ দেখলাম সেই ঠাকুরের, প্রাণ জুড়িয়ে গেল।
কিন্তু একি? এ মুখ তো নয় দুর্গা বা পার্বতী?
এ যেন এক ঘরের মেয়ে, চেনা জানা অতি।
নবীন কাকার সামনে গিয়ে কি হয়েছে বলি,
কেঁদে বলেন নবীন কাকা সবই জলাঞ্জলি।
শ্রাবণ মাসে বন্যা হলো, গেল অনেক কিছু,
মারণব্যাধি এলো তখন বানের পিছু পিছু।
ভাদ্র মাসের পূর্ণিমাতে সেই ব্যধি যে ধরল,
মেয়ে আমার অনেক কষ্টে যন্ত্রনাতে মরল।
ঠাকুর গড়ি, দু হাত আমার অবশ হয়ে আসে,
সব প্রতিমার মুখ জুড়ে ওই মেয়ের মুখটি ভাসে।
দ্যাখ্ না তোরা, দ্যাখ্ না সবাই, চোখ আঁকা শেষ হলো,
দ্যাখ্ না এইতো মেয়ে আমার হাসছে ঝলোমলো।
কোথায় গেলি মা রে আমার? কোথায় তোকে পাই?
মূর্তি গড়ে খুঁজি তোকে মূর্তিতে তুই নাই।

ষষ্ঠী এলে বোধন, দেবীর প্রাণ প্রতিষ্ঠা হবে,
জাগবে ঠাকুর, কিন্তু আমার মেয়ে ফিরবে কবে?
কেউ কি কোন মন্ত্র জানো মৃন্ময়ী এই মেয়ে,
বাবার চোখের জল মোছাতে উঠবে হেসে গেয়ে?
আমরা অবাক! মহালয়ায় ভোরের শিউলি ঝরে,
কি নিদারুণ ঠাকুর পুজো নবীন কাকার ঘরে!

Final Words

কবিতা গুলো দুর্গা পূজার এই মরসুমের সাথে একদম পরিপূর্ণ। দুর্গা পূজার কবিতা গুলো ছোটো ও বড়ো উভয় ক্ষেত্রের মানুষের জন্যই। কবিতা গুলো ভালো লেগে থাকলে সুন্দর নীচে একটি কমেন্ট বক্সে সুন্দর একটি কমেন্ট ছেড়ে যান যাতে আমরা এরকমই আরও সুন্দর কবিতা ভবিষ্যতে উপহার দিতে পারি।

আমাদের ওয়েব সাইটে এরকমই আরও Durga Puja Kobita, Bengali Images, Bengali Essay On Durga Puja পোষ্ট করা হবে। সেগুলো পেতে আমাদের ওয়েব সাইটটিকে বুকমার্ক করে রাখুন। পরবর্তীতে আরও Bengali Durga Puja 2021 নিয়ে কী পোষ্ট করা হবে সেগুলোর আপডেটস পেতে আমাদের ফেসবুক পেজটিকে লাইক করে পাশে থাকুন। ধন্যবাদ!

Share This:
  • 2
    Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

close