Rabindra Jayanti Bengali Speech (2022) | রবীন্দ্র জয়ন্তী সম্পর্কে বক্তিতা [PDF]

রবীন্দ্র জয়ন্তী বক্তিতা, রবীন্দ্র জয়ন্তী সম্পর্কে বক্তৃতা, ২৫ বৈশাখ প্রতিবেদন রচনা, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর অনুচ্ছেদ PDF [Rabindra Jayanti Bengali Speech PDF Download, Rabindra Jayanti Speech in Bengali 2022] (Rabindranath Tagore Birthday Speech in Bengali, 25 Se Baisakh Speech in Bengali)

Rabindra Jayanti Speech in Bengali

এই 25 শে বৈশাখে আমাদের এই Rabindra Jayanti Bengali Speech টি আপনি আপনার স্কুল, কলেজ, অফিসে রবীন্দ্র জয়ন্তী উপলক্ষে বক্তিতা হিসেবে পাঠ করতে পারেন। এই পোষ্টের একদম নীচে পিডিএফ ডাউনলোড লিংক দেওয়া আছে সেখান দিয়ে আপনারা রবীন্দ্র জয়ন্তী অনুচ্ছেদ টি ডাউনলোড করতে পারবেন।

Rabindra Jayanti Speech in Bengali (রবীন্দ্র জয়ন্তী বক্তিতা)

আজ 25 শে বৈশাখ কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের 161 তম জন্ম জয়ন্তী। বাঙালির মানসপটে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর সদাই বিরাজমান তিনি আমাদের অহংকার। বাঙালির জীবনের যত ভাবনা, বৈচিত্র আছে তার পুরোটাই লেখনী, সুর আর কাব্যে তুলে ধরেছেন কবিগুরু। তার সাহিত্যকর্ম, সংগীত, জীবনদর্শন, মানবতা, ভাবনা সবকিছুই সত্যিকারের বাঙালি হতে অনুপ্রেরণা দেয়।

কবিগুরুর জন্ম 1268 বঙ্গাব্দে আজকের দিনে। মা সারদাসুন্দরী দেবী এবং বাবা বিখ্যাত জমিদার ও ব্রাহ্মণ ধর্মগুরু মহর্ষি দেবেন্দ্রনাথ ঠাকুর। 1875 সালে মাত্র 14 বছর বয়সে রবি ঠাকুরের মাতৃবিয়োগ ঘটে। পিতা দেবেন্দ্রনাথ দেশভ্রমণের নেশায় বছরের অধিকাংশ সময়ে কলকাতার বাইরে অতিবাহিত করতেন। তাই ধর্নাট্য পরিবারের সন্তান হয়েও রবি ঠাকুরের ছেলেবেলা কেটেছিল ভৃত্যদের অনুশাসনে।

শৈশবে তিনি কলকাতায় ওরিয়েন্টাল সেমিনারি, নর্মাল স্কুল, বেঙ্গল একাডেমি ও সেন্ট ডেভিয়াস কোলেজিয়েট স্কুলে পড়াশোনা করতেন। ছেলেবেলায় জোড়াসাঁকোর বাড়িতে অথবা বোলপুরে ও পানিহাটির বাগানবাড়িতে প্রকৃতির পরিবেশের মধ্যে ঘুরে বেড়াতে বেশি স্বাচ্ছন্দ বোধ করতেন।

আট বছর বয়সে কবিতা লিখতে শুরু করেন। 1878 সালে ব্যারিস্টারি পড়ার উদ্দেশ্যে তিনি ইংল্যান্ডে যান। সেখানে তিনি ব্রাইটনের একটি পাবলিক স্কুলে ভর্তি হন। 1879 সালে ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডনে আইনবিদ্যা নিয়ে পড়াশোনা শুরু করেন।

প্রায় দেড় বছর ইংল্যান্ডের কাটিয়ে 1880 সালে কোন ডিগ্রী না নিয়েই দেশে ফিরে আসেন। 1883 সালে ভবতারিণীর সঙ্গে তিনি বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। বিবাহিত জীবনে ভবতারিণীর নামকরণ হয়েছিল মৃণালিনী দেবী। এরই মধ্যে চলতে থাকে তাঁর সাহিত্যচর্চা। 1891 সাল থেকে পিতার আদেশে নদীয়া, পাবনা, রাজশাহী, উড়িষ্যার জমিদারি তদারকি শুরু করেন রবীন্দ্রনাথ।

কুষ্টিয়ার শিলাইদহের কুঠিবাড়িতে তিনি দীর্ঘ সময় অতিবাহিত করেন। 1901 সালে রবীন্দ্রনাথ সপরিবার শিলাইদহ ছেড়ে চলে আসেন বীরভূম জেলার বোলপুর শহরের উপকণ্ঠে শান্তিনিকেতনে। বাংলা ভাষা ও সাহিত্যকে রবীন্দ্রনাথ পৌঁছে দিয়েছিলেন বিকাশের চূড়ান্ত সোপানে।

বাংলা ভাষার সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ সাহিত্যিক রবীন্দ্রনাথকে গুরুদেব, কবিগুরু ও বিশ্বকবি অভিধায় ভূষিত করা হয়। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের 52 টি কাব্যগ্রন্থ 38 টি উপন্যাস 36 টি প্রবন্ধ ও অন্যান্য সংকল তার জীবনদশায় ও মৃত্যুর পর প্রকাশিত হয়েছে।

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর নামটা বাঙালির আবেগ রক্তে মিশে থাকা এক অস্তিত্ব। বাঙালি জাতির হৃদয়ে তার সাহিত্য সংস্কৃতির জগতে এই ক্ষণজন্মা মানুষটির অক্ষয় আসন বিছানো। আমরা বাঙালি হিসেবে আমাদের পরম সৌভাগ্য। আমাদের অতীব গৌরবের বিষয়।

সেজন্য পঁচিশে বৈশাখ জন্মদিন উদযাপনের ধারাকে বহন করে কেবল রবিঠাকুরকে স্মরণ করার কথা বলে না, আমাদের চেতনাকে জাগ্রত করে মানুষের অনুযোগী করে বিশ্ববোধে অনুপ্রাণিত করে। কারণ পঁচিশে বৈশাখের সুনামধন্য মানুষটি ছিলেন মানবপ্রেমিক, বিশ্বপ্রেমিক, বিশ্বনান্দিত সর্বভৌম কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ। ধন্যবাদ।

আরো পড়ুন – হঠাৎ দেখা কবিতা

Recitation Video of Rabindra Jayanti Bengali Speech:

Rabindra Jayanti Bengali Speech PDF Download Link

Download File

Final Words

আমাদের তরফ থেকে আমরা ধন্যবাদ জানাতে চাই রিঙ্কু দেবনাথকে এত সুন্দর একটা লেখা আমাদের উপহার দেওয়ার জন্য। এরকম সুন্দর লেখা ও কবিতা শুনতে সাবস্ক্রাইব করুন Rinku Debnath Kobita on Youtube ধন্যবাদ!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

close